ডোমেইন ও হোস্টিং কিনতে চাইলে!

ডোমেইনের (Domain) বাংলা অর্থ হলো স্থান বা ঠিকানা, যা ইন্টারনেট জগতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। মনে করুন, অনলাইনে আপনি একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলেছেন এবং এই প্রতিষ্ঠানের একটি ইউনিক নাম দিলেন যেন মানুষ সহজেই বুঝতে পারে আপনি কী ধরনের সেবা দিচ্ছেন।

ঠিক যে নামের মাধ্যমে আপনার প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটটি অন্য মানুষ খুঁজে পাবে, সেটাই হলো ডোমেইন। এই ডোমেইন নামই আপনার ওয়েবসাইটকে অন্যদের থেকে আলাদা করবে।

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চাইলে সবার আগে প্রয়োজন হবে একটি ডোমেইন, তারপর সেই ডোমেইনটি হোস্ট করার জন্য ভালো মানের একটি হোস্টিং সার্ভার।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এমনকি আমাদের বাংলাদেশেও অসংখ্য ডোমেইন এবং হোস্টিং কোম্পানি রয়েছে, যারা ভালো মানের ডোমেইন এবং হোস্টিং সেবা প্রদান করে থাকে। তবে ডোমেইন ও হোস্টিং সম্পর্কে ভালো করে জেনেশুনে তারপর সঠিক একটি প্রতিষ্ঠান থেকেই নেওয়া ভালো। তা না হলে পরে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

ভালো মানের ডোমেইন

অন্যান্য সাইট রেজিস্ট্রেশন করার মতোই ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করাটাও একটি সহজ কাজ। এ ক্ষেত্রে আপনাকে শুধু কয়েকটি স্টেপের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। আপনার পছন্দের ডোমেইন নামটি খালি আছে কি না তা চেক করার পর যদি দেখেন খালি নেই, অর্থাৎ এই নামটি অন্য কেউ ব্যবহার করছে, তাহলে কাক্সিক্ষত ডোমেইন নামের আগে-পরে কিছু যুক্ত করুন। যেমন আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম যদি হয় solution এবং ডোমেইন কিনতে গিয়ে যদি দেখেন solution.com ডোমেইনটি খালি নেই তবে thesolution.com অথবা solutions দিয়ে সহজেই ডোমেইন কিনে নিতে পারেন।

আন্তর্জাতিকভাবে, জনপ্রিয় ডোমেইনগুলোর  (.com .org .info.net ) বার্ষিক মূল্য প্রোভাইডারভেদে কম বেশি হয়ে থাকে। সাধারণত এসব ডোমেইনের মূল্য ৮৫০-১২০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে এক বছরের জন্য। তবে যারা এক বছরের জন্য কিনে থাকেন, তাদের ট্রেড লাইসেন্সের মতো প্রতি বছর রিনিউ করতে হয়। আমাদের দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন মূল্যে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে থাকে। আর ডটবিডি (.নফ) এবং ডটবাংলা (.বাংলা) ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আপনি বিটিসিএল -(বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড) ওয়েবসাইট থেকে কিনতে পারবেন।

এ ছাড়া, আপনি যদি নিজে কোনো ঝামেলা না পোহাতে চান তাহলে সহজেই বিকাশ, রকেট ও অন্যান্য পেমেন্ট মেথড দিয়ে HostPio কোম্পানির কাছ থেকেও নিতে পারেন। তারা বিটিসিএলের প্রাইস ও তাদের নির্ধারিত সার্ভিস চার্জ নেওয়ার মাধ্যমে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে থাকে।

উল্লেখ্য, অনেক হোস্টিং প্রতিষ্ঠান আছে, যাদের কাছ থেকে নির্ধারিত হোস্টিং প্যাকেজ কিনলে তারা আপনাকে এক বছরের জন্য আপনার কাক্সিক্ষত ডোমেইনটি একদম বিনামূল্যে অর্থাৎ ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করে দেবে। আবার অনেক ব্যবসায়ী বিনামূল্য থেকে শুরু করে বিভিন্ন অফার দিয়ে ১০০ থেকে ৮০০ টাকায়ও ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করিয়ে থাকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, সাড়ে আট শ টাকার চেয়ে কমমূল্যে কোনো ব্যবসায়ীর পক্ষে ডোমেইন বিক্রি করে লাভ করা সম্ভব নয়। এ ক্ষেত্রে যদি কেউ আরও কমের অফার দিয়ে থাকেন, তাহলে বুঝতে হবে হয়তো তারা মার্কেট ধরার জন্য ভর্তুকি দিচ্ছেন, নয়তো এখানে অন্য কোনো মার্কেটিং পলিসি কাজ করছে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই জেনেশুনে সঠিক একটি প্রতিষ্ঠান থেকে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করা উচিত।

ভালো মানের হোস্টিং

প্রথমত, ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন। হোস্টিং রিভিউ ও কন্ডিশনগুলো মনোযোগ দিয়ে পড়–ন। ডিস্ক স্পেস, ব্যান্ড উইথ ও সার্ভার পারফরম্যান্স চেক করুন। ব্যাকআপ, আপটাইম এবং ইউজার কন্ট্রোল প্যানেল সম্পর্কে জানুন। কাস্টমার সাপোর্ট যাচাই করুন। খেয়াল রাখবেন লোভনীয় মূল্য এর ফাঁদে যেন আটকে না যান। সর্বাধিক নিরাপত্তা বা হাইসিকিউরিটি নিশ্চিতকরণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করুন।

পরিশেষে, কেনার আগে অবশ্যই নিশ্চিত হয়ে নিন কোম্পানি মানিব্যাক গ্যারান্টি দিচ্ছে কি না। আশা করি ওপরের আলোচনাগুলো মাথায় রাখলে আপনি সহজেই সঠিক প্রতিষ্ঠান থেকে একটি ভালো মানের ডোমেইন ও হোস্টিং কিনতে পারবেন।